এই ভাবে চিংড়ি পোলাও রান্না করলে স্বাদ হবে দুর্দান্ত, সময় লাগবে একদম কম, রইল স্টেপ বাই স্টেপ ভিডিওসহ রেসিপি!

নিজস্ব প্রতিবেদন: আমরা অনেক সময় বিভিন্ন ধরনের ধরনের মজার রান্না খেয়ে থাকি ।আমরা বাঙালি জাতি আমরা ভোজনরশিক। আমরা সকলেই ভালোবাসি ভোজন করতে ভোজনের মাত্র তা যদি হয় দ্বিগুণ তবে আমাদের রান্না করতে হয় দ্বিগুণ মজা অনুসারে ।এরকম একটি মজাদার খাবার হচ্ছে চিংড়ি পোলাও ।রেসিপি চিংড়ি মাছ দিয়ে তৈরি করা হয় ।আজকে আমরা জানবো কিভাবে চিংড়ি দিয়ে অসাধারন মজাদার রেসিপি তৈরি করা হয়। রেসিপিটি টি তৈরি করা হলে রেসিপিটি খেতে খুব মজা হবে।

এমন সুস্বাদু রেসিপি তৈরি করার জন্য অবশ্যই সকল নিয়ম কানুন মেনে রেসিপি তৈরি করতে হবে ।কোনো নিয়ম-কানুন বাদ পড়লে রেসিপিটি খেতে সুস্বাদু লাগবে ।রেসিপি পারফেক্ট ভাবে তৈরি হবে না। পারফেট ভাবে রেসিপি তৈরি করার জন্য অবশ্যই রেসিপিটি কে সব নিয়মকানুন মেনে তৈরি করতে হবে। তবে এই রেসিপিটির আসল স্বাদ পাওয়া যাবে। আসুন জেনে নেই কিভাবে তৈরি করতে হয় চিংড়ি পোলাও।

উপকরণ সমূহঃ চিংড়ি মাছ, পোলাওয়ের চাল, তেল, শুকনা লাল মরিচ, লবণ, তেজপাতা, এলাচ, দারুচিনি, মরিচ, পেঁয়াজ, আদা রসুন বাটা, টমেটো কেচাপ, টক দই। চিনি।

রন্ধন প্রণালীঃ প্রথমে চিংড়ি মাছ গুলোকে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে পরিষ্কার করা চিংড়ি মাছ গুলোকে লবণ ও সামান্য পরিমাণ শুকনা মরিচ দিয়ে মেখে রাখতে হবে কিছুক্ষণের জন্য ।মাখা হয়ে গেলে মাখিয়ে রাখা চিংড়ি মাছ গুলোকে চুলার মধ্যে কড়াই দিয়ে কড়াইয়ের মধ্যে তেল দিয়ে লাল লাল করে চিংড়ি মাছ গুলোকে ভেজে নিতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে চিংড়ি মাছ গুলোকে একটি বাটিতে উঠিয়ে নিতে হবে.

এরপর কড়াইয়ের মধ্যে থাকা অবশিষ্ট তেলের মধ্যে কিছুটা তেল দিয়ে দিতে হবে এরপর এর মধ্যে কে কি করে দারুচিনি এলাচ তেজপাতা দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়তে হবে যাতে করে তেলের মধ্যে মশলাপাতির গ্রাম টা চলে আসে এরপর এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে কুচি কুচি করা পেঁয়াজ। পেঁয়াজকলি ব্রাউন কালার হয়ে আসলে এর মধ্যে স্বাদ অনুযায়ী আদা রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ টমেটো কেচাপ, টক দই ,কাঁচা মরিচ দিয়ে এগুলোকে কিছুক্ষণ নেড়েচেড়ে নিতে হবে। নাড়া হয়ে গেলে এগুলোকে কিছুক্ষণের জন্য জাল দিতে হবে ।

জাল দেওয়া হয়ে গেলে বাটিতে উঠিয়ে রাখা ভেজে রাখা চিংড়ি মাছ গুলোকে সেই কড়াইয়ে ঢেলে দিতে হবে। এরপর সেই মাছগুলোকে পড়ে থাকা মশালাগুলো সাথে মিশিয়ে মিশিয়ে নেড়ে দিতে হবে। বিষন্ন হয়ে গেলে সেই চিংড়ি মাছ গুলোকে আবার কিছুক্ষণের জন্য জাল করে নিতে হবে যার করা হয়ে গেলে সেই মাছের ঝোল এর মধ্যে দিয়ে রাখা পোলাওয়ের চাল দিয়ে দিতে হবে।

পোলাওয়ের চাল দেওয়া হয়ে গেলে সেই চাল গুলো কে ভাল করে মাছের ঝোলের সাথে মিশিয়ে নিতে হবে।মেশানো হয়ে গেলে সেই চালের মধ্যে প্রয়োজন মাফিক পানি দিয়ে চাল গুলো কে কিছুক্ষণের জন্য ভাপে রাখতে হবে ।ভাপে রাখা পর দেখতে হবে চাল গুলো ঠিক মত তৈরি হয়েছে কিনা না ।চাল গুলো ভালো করে সেদ্ধ হলে তৈরি হয়ে যাবে আমাদের চিংড়ি পোলাও এর রেসিপিটি। আপনারা বাসায় তৈরি করে দেখবেন অবশ্যই আপনাদের সকলে ভালো লাগবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *