গ্রামের প্রাচীন কায়দায় খালে জাল দিয়ে টান দিতেই উটে আসছে ব্যাপক মাছ, ইন্টারনেটে তুমুল ভাইরাল ভিডিওটি!

নিজস্ব প্রতিবেদন: মানুষ সেই প্রাচীনকাল থেকেই মাছ শিকার করে আসছে। নিয়মিত প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে মাছের মত উপাদেয় আর কিছু নেই। সকলের খাবারের তালিকায় মাছ একটি অন্যতম উপাদান। মাছ খেতে কে না ভালোবাসে। তবে মাছ ধরা কিছু কম যায় না। অনেকের কাছে এই মাছ ধরা এক প্রকার নেশা। আবার অনেকে শখের বসে মাছ ধরে থাকে।

মাছ ধরতে খুব বেশি উপকরণের দরকার হয় না। আশেপাশের সামান্য উপকরণ দিয়ে মাছ ধরা যায়। এই মাছ ধরতে আসলে যে জিনিসটি দরকার সেটা হলো ধরো। যদি কারো ধৈর্য না থাকে তবে কোন ভাবে মাছ ধরা তার পক্ষে সম্ভব না। এমন অনেক মানুষ আছেন যারা মাছ ধরতে গিয়ে দিনের পর দিন পার করে দিয়েছেন। আবার অনেকে আর ফেরেন নি । তবে এই যে মানুষের মাছ ধরার নেশা সেটা কখনো কম হয় নি।

বর্তমানে বিশ্বের সার্বিক পরিস্থিতি জানার অন্যতম মাধ্যম হলো সোশ্যাল মিডিয়া। এর মাধ্যমে সহজেই এক জায়গার খবর অন্য জায়গায় আমরা জানতে পারি । মুহূর্তের মধ্যেই একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা ,সমালোচনা করতে পারি। আবার এমন কিছু আমরা এর মাধ্যমে পাই যা হয়তো এর আগে কখনো আমরা দেখি নি। বর্তমানে মানুষের মাঝে ভাইরাল হওয়ার প্রবণতা অনেক বেশি। সকলেই চায় সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনার বিষয় হতে।

প্রত্যেকে তাদের প্রতিভা দেখানোর জন্য নানা রকম ভঙ্গিমা করে সেটা ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করছে। শুধু মানুষের ভিডিও নয় অনেক সময় মানুষের কিছু কাজ সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক সাড়া ফেলে দিচ্ছে। এমন একটি কাজ যা কিছুদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক বেশি ভাইরাল হয়। সকলে নানা ধরনের মন্তব্য করতে থাকে। ভিডিও টি তে এক লোকের মাছ ধরার কাজ করতে দেখা যায়। আরো দেখা যায় কিভাবে তিনি গ্রামীণ হতে বানানো জলের মাধ্যমে নদীতে মাছ ধরেন।

ভিডিও টিতে দেখা যায় একজন লোক ৩ টি বাঁশ দিয়ে একটি ত্রিকোণাকার ফ্রেম তৈরি করেন। এই ফ্রেমটির তিনি জাল পেঁচিয়ে ,নদীতে মাছ ধরতে নামেন। জাল টি ছোট হলেও দেখতে আকর্ষণীয় ছিলো। শুধু দেখতেই না নদীতে জাল দিয়ে মাছ ধরার পদ্ধতি ও অনেক বেশি জনপ্রিয়তা পায়। এভাবে মাছ ধরার পদ্ধতি অনেক আগে থেকে আমাদের গ্রামীণ সমাজে চলে আসছে।

আর অবাক করার মতো দৃশ্যটি হলো তাতে অনেক বেশি পরিমাণে মাছ ধরা পরেছিলো। জলের আকার ছোট হওয়ার কারণে ছোট মাছ গুলো ধরা পরেছিলো। এই ভিডিওটি নেট মাধ্যমে প্রচুর ভাইরাল হয়। যা অল্প সময়ের মধ্যে সকলের কাছে অনেক বেশি আকর্ষণীয় ও প্রশংসা লাভ করে। সকলে এর মন্তব্য ছিল দেখার মতো। মন্তব্য গুলো অনেক মজার ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *