বনে এসেছে নতুন রাজা। সিংহাসন নিয়ে তুমুল লড়াই সিংহ এবং ভয়ঙ্কর সেই প্রাণীটির মধ্যে। এমনই এক অদ্ভুত ভিডিও ভাইরাল নেটপাড়ায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন:দুই প্রাণীর তুলনামূলক শারীরিক সক্ষমতা, শিকার ধরা ও লড়াই করার কৌশল এবং মুখোমুখি লড়াইয়ের ফল দিয়ে বিবেচনায় ভয়ংকর প্রাণী এগিয়ে। সিংহ যতই হাজারো লোককথার কিংবদন্তি ও রাজকীয় চেহারার অধিকারী হয়ে থাকুক না কেন গায়ের জোরে কখনোই ভয়ংকর প্রাণীর সাথে পেরে উঠবে না।

দুই প্রাণীর শারীরিক শক্তি এবং সক্ষমতার পার্থক্য এদের শিকার অভ্যাসেও ধরা পড়ে। সিংহ সচরাচর দলগত ভাবে এবং ভয়ংকর প্রাণী একা একা শিকার করে বলে এই দুই প্রজাতির প্রাণীর মধ্যে শিকারের তুলনা করাটা একটু জটিল, তবুও চাইলে করা যায় কারণ নতুন দলের দায়িত্ব নেওয়ার আগে প্রতিটি পুরুষ সিংহকে যেহেতু কয়েক বছর একা একা শিকার করতে হয়।

বাঘ শিকার করার চেষ্টা করে অ্যাম্বুসের মাধ্যমে, খুব ধীরে ধীরে লুকিয়ে শিকারের একদম কাছে চলে আসে এবং হঠাৎ করে ঘাড়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে। শিকারের প্রয়োজনে ভয়ংকর প্রাণী চাইলে ৩০ ফিটেরও বেশি দূরে লাফ দিতে পারে যেখানে সিংহ পারে ২৫ ফিটের মত।

ভয়ংকর প্রাণী তার ওজনের ৫ গুণ বেশি বড় প্রাণীও শিকার করতে পারে। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মহিষ প্রজাতি যাকে গোর (gaur) বলে তা ভারতে পাওয়া যায়, এদের ওজন একটনও ছাড়াতে পারে। আর এসব প্রাণী হল ভয়ংকর প্রাণী পছন্দের শিকার। একটি সিংহ কখনোই একা একা এত বড় কোন জন্তু শিকার করতে পারবে না, তারা সাধারণত নিজ ওজনের দ্বিগুণ আকারের পশু শিকার করেই সন্তুষ্ট থাকে।

ভয়ংকর প্রাণীর গায়ে সিংহের চেয়ে শক্তি বেশি, বাঘের ওজনও সিংহের চেয়ে বেশি হয়ে থাকে। একটি আফ্রিকান পুরুষ সিংহ যেখানে গড়ে ১৯০ কেজি ওজনের হয় সেখানে সুন্দরবনের ভয়ংকর প্রাণী ওজনে আরও ৩০ কেজি বেশি হয়। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ভয়ংকর প্রাণী প্রজাতি সচরাচর সাইবেরিয়ান টাইগারদের বলা হয়, একেকটি পুরুষ সাইবেরিয়ান টাইগার ৩০০ কেজিরও বেশি ওজনের হতে পারে-

যা পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সিংহ প্রজাতি আফ্রিকান সিংহের চেয়েও পাক্কা ১১০ কেজি বেশি! বাঘের কামড়ও সিংহের চেয়ে বেশি ভয়ঙ্কর। সিংহ যেখানে প্রতি বর্গ ইঞ্চিতে ৬৫০ পাউন্ডের কামড় বসাতে পারে বাঘ সেখানে পারে ১০৫০ পাউন্ডের। ইন্টারনেটে অনেকক্ষণ ঘাটাঘাটি করে মনে হল এই দুই প্রাণীর মধ্যে কার থাবার জোর বেশি তা নিশ্চিত ভাবে জানা যায় না তবে ভয়ংকর প্রাণীর থাবা সিংহের চেয়ে ২৪ শতাংশ বেশি চওড়া।

এছাড়া হাড়ের গঠনও বলছে ভয়ংকর প্রাণীর থাবার শক্তি সিংহের চেয়ে বেশি হওয়ার কথা। অনুমান করা হয় ভয়ংকর প্রাণী সর্বোচ্চ চার হাজার কেজি ওজনের থাবা মারতে পারে যা একটি মহিষের মাথার খুলি ফাটিয়ে ফেলার জন্য যথেষ্ট! বাঘের পিছনের দুই পা সিংহের তুলনায় খাটো এবং বেশি শক্তিশালী যার ফলে ভয়ংকর প্রাণী পিছনের দুই পায়ে ভর করে উঠে দাঁড়াতে পারে এবং একই সাথে সামনের দুই পা দিয়ে সমানে থাবা মেরে যেতে পারে যা সিংহের পক্ষে অতটা ভালো ভাবে করা সম্ভব নয়।লড়াইয়ে নামলে ভয়ংকর প্রাণী জিতবে।বিস্তারিত রইল ভিডিওতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *