জাল দিয়ে অভিনব পদ্ধতিতে গ্রামের পুকুরে ডুব দিয়ে তুলে নিয়ে আসছে বড় বড় মাছ, অবাক করা কান্ড, ভাইরাল সেই ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:মাছ ধরা, সংগ্রহ বা আহরণে ব্যবহূত যে কোন ধরনের সাজসরঞ্জাম, হাতিয়ার বা যন্ত্রকৌশল।বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অনেকে হাত দিয়েও মাছ ধরে। শীতকালে গ্রামাঞ্চলে মৌসুমি জলাশয় বা বিলে নানা সরঞ্জাম দিয়ে বা সরঞ্জাম ছাড়া প্রায়শ একত্রে লোকেদের মাছ ধরা একটি সুপরিচিত দৃশ্য।

বাংলাদেশের সর্বত্র ঝাঁকিজাল ব্যবহূত হয়। জাল ছোড়ার পর গোল দেখায়। জালের নিচের কিনারা জুড়ে লোহার বল গাঁথা থাকে বলে এটি ওজনে ভারি হয়। হাত দিয়ে ছুড়ে ব্যবহার করা এই জাল সাধারণত পুকুর, বিল, মোহনা ও উপকূলীয় অগভীর পানিতে ব্যবহূত হয়ে থাকে।

পৃথিবীর প্রায় সকল দেশেই কমবেশি মাছ চাষ করা হয়। প্রাচীনকাল থেকেই মানুষের খাদ্য তালিকার অন্যতম একটি প্রধান বিষয়বস্তু হলো মাছ। মানুষেরা প্রায় সূচনা লগ্ন থেকেই মাছ শিকার করে আহার করে আসছে। প্রায় সকল দেশের নদী সমুদ্র পুকুর এসব স্থানে প্রচুর পরিমাণ মাছ পাওয়া যায়। অনেকেই আবার বাণিজ্যিকভাবে মাছ চাষ করে অনেক লাভবান হন।

মাছ চাষের ফলে অনেক সময় দেশের ঘাটতি মিটিয়েও অতিরিক্ত মাছ বিদেশে রপ্তানি করা যায়।আর মাছ এমন একটি খাবার যা প্রায় সকলেই খেতে পছন্দ করে। মাছ দিয়ে যে কতো বেশি পরিমাণ রেসিপি হয় সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। বিভিন্ন দেশের মাছের রেসিপি গুলো জিভে জল এনে দেয় সহজেই।কিন্তু একবার ভাবুন যারা মাছ চাষ করে তাদের কি অবস্থা?

অনেকই পেশা হিসেবে মাছ চাষ বেছে নিলেও অনেকই আবার শখের বসে মাছ চাষ করেন।বছর বছর প্রযুক্তি উন্নতির সাথে সাথে বর্তমানে বিভিন্ন কিছু আমরা সহজেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পারি। সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের জানার পরিধি কে আরো বহুগুণে বাড়িয়ে তুলেছে। যার ফলে সহজেই আমরা আমাদের চাহিদামত বিষয়াদি সম্পর্কে জ্ঞান নিতে পারি।

এমনই একটি জানার ও বোঝার বিষয় হলো মাছ চাষ। মাছ চাষ সহজ মনে হলেও এর জন্য অনেক বেশি পরিশ্রম এর দরকার হয়।শুধু পানিতে মাছ ছাড়লে নয় মাছের দেখভাল ও খাবারের জন্য আলাদা আলাদা তদারকির দরকার হয়। তবে বর্তমানে শখের বশে মাছ চাষ করা খুব বেশি বেড়েছে, অনেকেই তাদের নিজস্ব পুকুরে শখের বশে মাছ চাষ করে তা থেকে ভালো মুনাফা অর্জন করছেন।

এমন একটি ভিডিও সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচুর পরিমাণ ভাইরাল হয়। যা অল্প সময়ের মধ্যে নেট দুনিয়ায় ব্যাপক সাড়া ফেলে দেয়।সকলে নানা ধরনের মন্তব্য করে থাকেন।ভিডিওটিতে দেখা যায় এক জেলে একটি পুকুরে মাছ চাষ করছেন। সেখানে কিছু মাছ অনেকদিন ধরে পালন করা হচ্ছিল।মাছগুলো হাইব্রিড জাতের হওয়ায় সেগুলো খুব বেশি পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

সেখানে এমন একটি মাছ দেখা যায় যার ওজন প্রায় 90 কেজি এবং মাছটি পাঙ্গাশ প্রজাতির।এই মাছটি অতিরিক্ত বড়ো হবার কারণে এটিকে কিছু নিদ্রিষ্ট সময় পর পর কিছু ভ্যাকসিন দেয়া হয়।যাতে সহজেই কোনো রোগবালাই না হয়।টিকা দেয়া শেষ এ মাছটিকে পুনরায় আবার পুকুরে ছেড়ে দেয়া হয়।

এটি খুব অল্প সময়ে আলোচিত একটি ভিডিও। এই ভিডিওটি মানুষ খুব অবাক হয়ে দেখেছে আর সকলের মন্তব্য গুলো ছিল দেখার মত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *